Monday, September 26, 2022
Homeলাইফ স্টাইলHow to get rid of ear problems কানের সমস্যা থেকে মুক্তি পাবেন...

How to get rid of ear problems কানের সমস্যা থেকে মুক্তি পাবেন কীভাবে জেনে রাখুন

সুমন তিওয়ারি, নতুন দিল্লি, ইন্ডিয়া নিউজ বাংলা, How to get rid of ear problems মানুষের শরীরের সংবেদনশীল অঙ্গগুলোর মধ্যে কান অন্যতম। অথচ কানের রোগ নিয়ে আমরা খুব একটা সচেতন নই। সামান্য কারণেই কানে বিভিন্ন ধরনের অসুখ হতে পারে।  তাই সামান্য অসাবধানতাই খুব গুরুতর অসুখ আকারে দেখা দিতে পারে।আমরা যদি সামান্য সচেতন হই  তাহলে এড়াতে পারব কানের অনেক সমস্যা। আসলে সচেতনতাই হল রোগ প্রতিরোধের প্রাথমিক পদক্ষেপ।

বিশ্বে প্রায় ৪৭ কোটি মানুষ শ্রবণ সমস্যায় ভুগছে How to get rid of ear problems

কান শরীরের একটি গুরুত্বপূর্ণ অঙ্গ। শ্রবণশক্তি দেওয়ার পাশাপাশি এটি শারীরিক ভারসাম্য বজায় রাখতেও সাহায্য করে। কানের রোগের ক্ষেত্রে অবহেলাও মারাত্মক হতে পারে। শ্রবণশক্তি হ্রাসের সমস্যা ধীরে ধীরে মারাত্মক আকার ধারণ করে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মতে, সারা বিশ্বে প্রায় ৪৭ কোটি মানুষ শ্রবণ সমস্যায় ভুগছে, যা সমগ্র জনসংখ্যার প্রায় ৬ শতাংশ। এভাবে চলতে থাকলে ২০৫০ সাল নাগাদ প্রায় ৯০ কোটি মানুষ শ্রবণশক্তি হারাতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

ঠান্ডা থেকে বাঁচুন

দীর্ঘস্থায়ী ঠান্ডার কারণে বেশিরভাগ কানের রোগ হয়। তাই কানকে সুস্থ রাখতে আমাদের ঠাণ্ডা লাগা থেকে বাঁচা প্রয়োজন। অ্যালার্জি থাকলে ঠান্ডা থাকলে দূরে থাকুন। নাক ও কানের মাঝখানে অবস্থিত ইউস্টাচিয়ান টিউব ঠিকমতো কাজ না করলে কানের ওপর বিরূপ প্রভাব পড়তে শুরু করে। সেই সঙ্গে কানেও সংক্রমণ পৌঁছতে পারে। তাই সতর্কতা অবলম্বন করা উচিত।

1606305808 5fbe4810cb791 image

কানে রক্তপাত উপেক্ষা করবেন না

যে কোন বয়সের মানুষ কানে রক্ত আসার সমস্যায়  ভুগতে পারে। এর প্রধান কারণ হল কানের ইনফেকশন, পর্দায় ছিদ্র বা হাড়ে ক্ষত। এটি বধিরতার প্রধান কারণ। সময়মতো সঠিক চিকিৎসা নিলে রোগের জটিলতা এড়ানো যায়। কান শুকনো রাখুন, এতে জল ঢুকতে দেবেন না।

উচ্চ শব্দ এড়িয়ে চলুন

মোবাইল, ইয়ারপ্লাগ এবং মিউজিক সিস্টেম শুধুমাত্র প্রয়োজনে এবং নিরাপদ পর্যায়ে ব্যবহার করুন। উচ্চ শব্দ থেকে দূরে থাকুন। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মতে, ৮৫ ডেসিবেলের নিচে শব্দ সর্বোচ্চ আট ঘণ্টার জন্য নিরাপদ বলে মনে করা হয়।

নিজে কান পরিষ্কার করবেন না

ইয়ারবাডের সঠিক ব্যবহার আমরা করতে পারি না।ইয়ারওয়াক্স, যাকে কথোপকথনে স্কাম বলা হয়, এটি কানের মধ্যে তৈরি হওয়া এবং বের হওয়া একটি স্বাভাবিক প্রক্রিয়া। ইয়ারবাড, কাঠি বা অন্যান্য অনুরূপ বস্তু শুধুমাত্র মোমের বাইরের অংশকে স্পর্শ করতে পারে কিন্তু মূল অংশটিকে আরও ভিতরে ঠেলে দিতে পারে, যা সমস্যাটিকে আরও বাড়িয়ে তুলে। এই বস্তুগুলি কানের পর্দাকেও আঘাত করতে পারে, তখন কানের বাইরের সংক্রমণেরও ঝুঁকি থাকে।

আরও পড়ুন : Benefits of garlic রসুনের উপকারিতা জানুন

আরও পড়ুন : Marigolds are full of healthy qualities স্বাস্থ্যকর গুণে ভরপুর গাঁদা ফুল

আঘাতে তেল লাগাবেন না

অনেক সময় শ্রবণশক্তি কমে গেলে সময়মতো চিকিৎসা নিলে গুরুতর সমস্যা এড়ানো যায়। কানে হঠাৎ আঘাত, পড়ে যাওয়া বা সহিংসতার কারণে আঘাতের ফলে কানের পর্দা হঠাৎ প্রচণ্ড চাপ সহ্য করতে পারে না এবং ফেটে যেতে পারে। কানে আঘাত লাগলে তেল ইত্যাদি লাগাবেন না।

Ear web 1200x900 1

চিকিৎসকের পরামর্শ নিন

কানের সামান্য সমস্যায় আমরা চিকিৎসকের পরামর্শ না নিয়ে পাশের ওষুধের দোকান থেকে ওষুধ কিনে নিয়ে আসি। আদতে এতে আমরা নিজেরাই নিজেদের ক্ষতি করছি। এর জন্য অভশ্যই চিকিৎসকের পরামর্শ নেওয়া উচিত।

_____

Published by Julekha Nasrin

RELATED ARTICLES
Html code here! Replace this with any non empty raw html code and that's it

Most Popular