Thursday, December 8, 2022
Homeস্বাস্থ্যIf You Are Troubled By Pigmentation Then Follow These Methods : ...

If You Are Troubled By Pigmentation Then Follow These Methods : পিগমেন্টেশন মোকাবিলায় ঘরোয়া টোটকা

ইন্ডিয়া নিউজ বাংলা

If You Are Troubled By Pigmentation Then Follow These Methods

ত্বকে দাগ-ছোপ নেই এমন মানুষ খুঁজে পাওয়া মুশকিল। ব্রণের দাগ, পিগমেন্টেশন, বাম্পস, ডার্ক প্যাচ এই সমস্যাগুলো আমাদের সবার জীবনেই কমবেশি লেগে থাকে। ব্রণের দাগ বা পিম্পল তো তবুও চলে যায়, কিন্তু ছোপ ছোপ কালো দাগ নিয়ে তো মহা মুশকিল। যেতেও চায় না আবার মেক-আপ দিয়ে সবসময় ঢেকেও রাখা যায় না। এই দাগ-ছোপকেই বলা হয় পিগমেন্টেশন। আজ আমরা জানবো পিগমেন্টেশন কী, কেন হয় আর এ থেকে মুক্তি পাওয়ার সহজ উপায় কী।

মুখের ত্বকের বা শরীরের কিছু অংশে অনেক সময় রঙ বদলে যেতে থাকে। ছোপ ছোপ এই বদলে যাওয়া রঙের সমস্যাকেই পিগমেন্টেশন বলা হয়। স্কিন টোনে এই দাগগুলো যখন খুব বেশি গাঢ় হয়ে যায় তখন একে বলা হয় হাইপার পিগমেন্টেশন।

পিগমেন্টেশনের জন্য প্রধান কারণ হিসেবে সূর্যের ক্ষতিকর রশ্মিকেই ধরা হয়। শরীরের খোলা অংশ যেমন মুখ, গলা, ঘাড়, হাত, ইত্যাদি অংশে সূর্যের আলো সরাসরি পড়ে বিধায় পিগমেন্টেশন হতে পারে। অনেকেই রোদে পোড়া কালচে দাগকেও পিগমেন্টেশন মনে করে থাকেন। তবে সানবার্ন ও পিগমেন্টেশনের মধ্যে কিন্তু পার্থক্য রয়েছে। সূর্যের আলোর প্রভাব ছাড়াও নানা কারণে পিগমেন্টেশন হতে পারে। প্রেগন্যান্সির সময়ে হরমোনাল কারণে, মেলাসমা, ইনসুলিন রেজিস্ট্যান্স ইত্যাদি কারণে পিগমেন্টেশন দেখা দেয়। এছাড়া ত্বকের মেলানিন ক্ষতিগ্রস্ত হলে বা মেলানিনের পরিমাণ অস্বাভাবিক বেড়ে গেলেও দেখা দিতে পারে পিগমেন্টেশন।

1. বাইরের আলো থেকে দূরে থাকা ভুল
আজকাল বাড়ি থেকে কাজ করার কারণে মানুষ ঘরে বসে কাজ শুরু করেছে। যার কারণে বাইরের আলো থেকে দূরে সরে গেছেন তিনি। এটাও একটা বড় ভুল। অনেক সময় লোকেরা সচেতন থাকে না যে তারা যে ফ্লুরোসেন্ট আলোর সংস্পর্শে আসছে তা ত্বকের জন্য কতটা ক্ষতিকর হতে পারে। ল্যাপটপ, ট্যাবলেট, ফোনের স্ক্রিন, ঘরে লাগানো ফ্লুরোসেন্ট বাল্ব ইত্যাদি ত্বকের হাইপারপিগমেন্টেশন বাড়ায়।

2. ত্বক খুব বেশি এক্সফোলিয়েটিং
এক্সফোলিয়েশন আপনার ত্বকের যত্নের রুটিনের একটি অপরিহার্য অংশ, কিন্তু এর মানে এই নয় যে আপনি অতিরিক্ত এক্সফোলিয়েট করছেন। আপনার যদি ব্রণ-প্রবণ ত্বক থাকে, তাহলে এই সমস্যা আরও বাড়বে। ব্যাকটেরিয়া ও অন্য কোনো দূষণের কারণে আমাদের ত্বক নোংরা হয়ে যায় এবং তা পরিষ্কার করা প্রয়োজন, কিন্তু যদি
যদি অতিরিক্ত পরিস্কার করা হয় তবে এটি ক্ষতির কারণ হতে পারে। অত্যধিক এক্সফোলিয়েশন হাইপারপিগমেন্টেশন হতে পারে। বিশেষজ্ঞদের মতে, শুষ্ক ত্বকের জন্য সপ্তাহে দুইবার এবং তৈলাক্ত ত্বকের জন্য সপ্তাহে একবার এক্সফোলিয়েশন যথেষ্ট।

08 1

3. আপনার ব্রণ ফাটাবেন না
আমরা প্রায়ই এই ভুলটা করে থাকি। আমিও করেছি এবং অনেক লোককে জানি যারা করে। আপনার ব্রণ ফাটিয়ে ব্রণ দূর করার চেষ্টা, পুঁজ অপসারণ ইত্যাদি সবকিছুই খুব খারাপ। 90% মানুষ এই ভুল করে। কিছু লোকের ক্ষেত্রে, এটি হাইপারপিগমেন্টেশনের সমস্যাকে আরও বাড়িয়ে তোলে এবং তাদের মুখে, গালে, কপালে বিভিন্ন জায়গায় কালো দাগ দেখা দেয়। রক্তক্ষরণ ব্রণ আর হতে দেয় না, তবে হাইপারপিগমেন্টেশন এবং ব্রণের দাগ দেখা দেয়। তাই এই ধরনের জিনিস থেকে সবসময় দূরে থাকুন।

4. সানস্ক্রিন ব্যবহার করুন
বাড়িতেও সানস্ক্রিন লাগাতে হবে, আবার বাইরে যাওয়ার সময়ও লাগাতে ভুলবেন না। আপনাকে সব সময় সানস্ক্রিন ব্যবহার করতে হবে এবং কয়েক ঘণ্টা পর আবার লাগাতে হবে। মুখকে সবসময় সতেজ রাখতে আপনার ত্বকের যত্নের রুটিনে এটি অন্তর্ভুক্ত করতে হবে। ৩-৪ ঘন্টার মধ্যে আপনাকে অবশ্যই সানস্ক্রিন পুনরায় প্রয়োগ করতে হবে। বিশেষ করে চোখের নিচে লাগান যাতে আপনার মুখের সংবেদনশীল ত্বকে কোনো দাগ না থাকে। সানস্ক্রিন সঠিকভাবে ব্যবহার না করলে রোদে পোড়া এবং পিগমেন্টেশনের সমস্যা সবচেয়ে বেশি বেড়ে যায়।

5. রাতের বেলা ত্বকের যত্নের চিকিত্সা করাও গুরুত্বপূর্ণ
প্রায়শই ডাক্তাররা পিগমেন্টেশন, কালো দাগ ইত্যাদির জন্য রাতের ত্বকের যত্নের রুটিনের পরামর্শ দেন। এটি কারণ রাতের ত্বকের যত্নের রুটিন আমাদের ত্বকে আরও কার্যকরভাবে কাজ করে এবং এটি ত্বককে খুব বেশি খাওয়াতে পারে। কিন্তু কিছু পণ্য আছে যা ত্বকে জ্বালাপোড়া করতে পারে। যেমন অ্যাসিডিক টোনার ইত্যাদি। তা কমার বদলে সমস্যা আরও বাড়তে পারে। এমন পরিস্থিতিতে, যদি রাতের ত্বকের যত্নের চিকিত্সা আপনার জন্য উপযুক্ত না হয় তবে এটি ব্যবহার করবেন না এবং যদি এটি আপনার জন্য উপযুক্ত হয় তবে সকালে ঘুম থেকে উঠে আপনার মুখ ভাল করে পরিষ্কার করুন এবং তারপরে সানস্ক্রিন লাগান।

6. লেবুর অতিরিক্ত ব্যবহার ভুল
আপনি যদি আপনার ত্বককে সতেজ এবং সুন্দর রাখতে বেশি লেবু ব্যবহার করেন তবে এটি আপনার পক্ষে ভুলও হতে পারে। লেবু DIY রেসিপিগুলিতে প্রচুর ব্যবহার করা হয়, তবে আপনাকে এটিও বুঝতে হবে যে লেবুতে সাইট্রিক অ্যাসিড রয়েছে যা ত্বকের pH ভারসাম্যকেও ব্যাহত করতে পারে। আপনি যদি ত্বকে লেবুর রস ব্যবহার করেন, তাহলে সেই সময় সূর্যের আলো থেকে দূরে থাকতে হবে। এটি একটি অ্যাসিডিক প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি করতে পারে।

7. অনেক বেশি রেটিনোইক বা হাইড্রোকুইনোন পণ্যগুলি ভুল
আপনি যদি অনেক বেশি রেটিনোইক বা হাইড্রোকুইনোন পণ্য ব্যবহার করেন তবে এটি আপনার ত্বকে কালো দাগ সৃষ্টি করতে পারে। এটি ত্বকের ঘনত্বকে আরও খারাপ করতে পারে এবং ত্বকে হাইপারপিগমেন্টেশন বাড়াতে পারে। অতএব, এই জাতীয় পণ্যগুলি ব্যবহার করার আগে আপনাকে অবশ্যই আপনার ডাক্তারের সাথে কথা বলতে হবে।

If You Are Troubled By Pigmentation Then Follow These Methods

আর ও পড়ুন  Want to be pimple free skin: ব্রণমুক্ত ত্বক পেতে ঘরোয়া খাবার

Publish by Abanti

RELATED ARTICLES
Html code here! Replace this with any non empty raw html code and that's it

Most Popular