Monday, September 26, 2022
HomeদেশAhmedabad Serial Blast Case : আহমেদাবাদ সিরিজ বিস্ফোরণ কান্ডে ৩৮ জন...

Ahmedabad Serial Blast Case : আহমেদাবাদ সিরিজ বিস্ফোরণ কান্ডে ৩৮ জন দোষীকে মৃত্যুদন্ড ও যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের আদেশ

ইন্ডিয়া নিউজ বাংলা

Ahmedabad Serial Blast Case

আহমেদাবাদ, রাহুল পান্ডে :  আহমেদাবাদ সিরিজ বিস্ফোরণ কান্ডে ৩৮ জন দোষীকে মৃত্যুদন্ড ও যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের আদেশ দিয়েছে আদালত। ২৬ জুলাই ২০০৮-এ আহমেদাবাদে সিরিয়াল বিস্ফোরণ ঘটানো হয়। এতে ৫৬ জন নিহত এবং ২০০ জনের বেশি আহত হয়। ৮ ফেব্রুয়ারি, সিটি সিভিল কোর্ট UAPA (বেআইনি কার্যকলাপ প্রতিরোধ আইন) এর অধীনে ৭৮ অভিযুক্তের মধ্যে ৪৯ জনকে দোষী সাব্যস্ত করেছিল। এই আসামিদের মধ্যে একজন আসামি সৈয়দ তদন্তে সহায়তা করার জন্য খালাস পেয়েছেন। এ ছাড়া প্রমাণের অভাবে ২৯ জনকে বেকসুর খালাস করে দেওয়া হয়েছে।

আদালত বলেছে, এসব বিস্ফোরণে নিহতদের স্বজনদের এক লাখ, গুরুতর আহতদের ৫০ হাজার এবং নাবালক আহতদের ২৫ হাজার টাকা দেওয়া হবে। জেলার সরাইমার থানা এলাকার বিনাপাড়ের বাসিন্দা আবু বাশারকে হামলার মূল হোতা বলে মনে করা হচ্ছে। এ ছাড়া সানজারপুরের বাসিন্দা মোহাম্মদ আরিফ, বাজ বাহাদুরের বাসিন্দা মোহাম্মদ সাইফ, কান্ধরাপুর থানা এলাকার শাহপুরের বাসিন্দা সাকিব নিসার, বদরকা ফাঁড়ির বাসিন্দা সাইফুর রহমান প্রমুখ। তাদের সবাইকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছে আদালত।

৭০ মিনিটে ২১টি বিস্ফোরণ ঘটে  Ahmedabad Serial Blast Case

২৬ জুলাই ২০০৮, এই দিনটি ছিল যখন ৭০ মিনিটের ব্যবধানে ২১ টি বোমা বিস্ফোরণ আহমেদাবাদের নাড়া দিয়েছিল। শহর জুড়ে এই বিস্ফোরণে কমপক্ষে ৫৬ জন মারা যায়, এবং ২০০ জন আহত হয়। বিস্ফোরণের তদন্ত কয়েক বছর ধরে চলেছে এবং প্রায় ৮০ জন অভিযুক্তের বিচার হয়েছিল। পুলিশ আহমেদাবাদে ২০টি এফআইআর নথিভুক্ত করেছিল, অন্যদিকে সুরাটে আরও ১৫ টি এফআইআর নথিভুক্ত করা হয়েছিল, যেখানে বিভিন্ন জায়গা থেকে তাজা বোমাও উদ্ধার করা হয়েছিল।

গোধরা ঘটনার প্রতিক্রিয়ায় বিস্ফোরণ ঘটানো হয়েছিল Ahmedabad Serial Blast Case

 

সন্ত্রাসী সংগঠন ইন্ডিয়ান মুজাহিদিন (আইএম) এবং নিষিদ্ধ ঘোষিত স্টুডেন্টস ইসলামিক মুভমেন্ট অফ ইন্ডিয়া (সিমি) এর সাথে যুক্ত ব্যক্তিরা এই হামলা চালায়। বিস্ফোরণের কয়েক মিনিট আগে, টেলিভিশন চ্যানেল এবং মিডিয়া বিস্ফোরণ সম্পর্কে ‘ইন্ডিয়ান মুজাহিদিন’ সতর্কবার্তা দ্বারা একটি ই-মেইল পাঠিয়েছিল। পুলিশের দাবী করে যে ২০০২ সালে গোধরা-পরবর্তী দাঙ্গার প্রতিক্রিয়ায় আইএম সন্ত্রাসীরা এই বিস্ফোরণ ঘটিয়েছিল। এই মামলার আরেক অভিযুক্ত ইয়াসিন ভাটকলের বিরুদ্ধে নতুন করে মামলা চালানোর প্রস্তুতি নিচ্ছে পুলিশ।

১৯ দিনে ৩০ জন সন্ত্রাসী ধরা পড়েছে  Ahmedabad Serial Blast Case

বিশেষ দল মাত্র ১৯ দিনে ৩০ জন সন্ত্রাসীকে ধরে জেল হাজতে পাঠায়। এরপর বাকি সন্ত্রাসীরা দেশের বিভিন্ন শহর থেকে ধরা পড়তে থাকে। আহমেদাবাদে বিস্ফোরণের আগে ইন্ডিয়ান মুজাহিদিনের একই দল জয়পুর ও বারাণসীতেও বিস্ফোরণ ঘটিয়েছিল। দেশের বিভিন্ন রাজ্যের পুলিশ তাদের ধরতে নিয়োজিত থাকলেও তারা একের পর এক বিস্ফোরণ ঘটাতে থাকে। আহমেদাবাদ বিস্ফোরণের দ্বিতীয় দিনে অর্থাৎ ২৭ শে জুলাই, সুরাটেও ধারাবাহিক বিস্ফোরণের চেষ্টা করা হয়েছিল, কিন্তু টাইমারের ত্রুটির কারণে সেগুলি বিস্ফোরণ হয়নি।

Ahmedabad Serial Blast Case

আর ও পড়ুন :  Special report on illegal mining of Shree Cement শ্রী সিমেন্টের স্বেচ্ছাচারিতায় মানুষের শ্বাস নিতে ও কষ্ট হচ্ছে

Publish by Monirul Hossain

RELATED ARTICLES
Html code here! Replace this with any non empty raw html code and that's it

Most Popular