Friday, December 9, 2022
Homeদেশ‘G-23’ leaders meet at Ghulam Nabi Azad’s residence : গোলাম নবি আজাদের...

‘G-23’ leaders meet at Ghulam Nabi Azad’s residence : গোলাম নবি আজাদের বাড়িতে জি-২৩ নেতাদের ৫ ঘণ্টা বৈঠক

ইন্ডিয়া নিউজ বাংলা

‘G-23’ leaders Meet 

নয়াদিল্লী : পাঁচ রাজ্যে শোচনীয় পরাজয়ের পর বুধবার রাতে অসন্তুষ্ট কংগ্রেস নেতাদের বৈঠক হয়। গোলাম নবী আজাদের বাড়িতে জি-২৩ নেতাদের এই বৈঠক চলে ৫ ঘণ্টা। বৈঠকের পরে একটি বিবৃতিতে বলা হয়েছে- ২০২৪ সালে বিজেপিকে চ্যালেঞ্জ করার জন্য একটি শক্তিশালী বিকল্প প্রয়োজন। কংগ্রেস হাইকমান্ডের উচিত অভিন্ন আদর্শ নিয়ে দলগুলির সঙ্গে কথা বলা। চিঠিতে গুলাম নবী আজাদ, আনন্দ শর্মা এবং বিবেক তানখা সহ ১৮ জন ভিন্নমতাবলম্বী নেতা স্বাক্ষর করেছেন।

প্রাক্তন কংগ্রেস নেতা শঙ্কর সিং বাঘেলা, ক্যাপ্টেন অমরিন্দর সিংয়ের স্ত্রী প্রনীত কৌর এবং মণিশঙ্কর আইয়ারও আজাদের বাড়িতে নৈশভোজে অংশ নিয়েছিলেন। তারা সবাই প্রথমবারের মতো জি-২৩ বৈঠকে যোগ দিয়েছেন। এছাড়াও বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন কপিল সিবাল, আনন্দ শর্মা, মণীশ তিওয়ারি, শশী থারুর, অখিলেশ প্রসাদ সিং, ভূপিন্দর সিং হুডা এবং পৃথ্বীরাজ চৌহান।

সূত্রের খবর, বৃহস্পতিবার কংগ্রেসের অন্তর্বর্তী সভানেত্রী সোনিয়া গান্ধীর সঙ্গে দেখা করবেন গুলাম নবী আজাদ। এই সময় রাহুল এবং প্রিয়াঙ্কাও উপস্থিত থাকবেন। হাইকমান্ড আজাদের সঙ্গে জি-২৩ নিয়ে চূড়ান্ত আলোচনা করতে পারে। ডিনার পার্টি থেকে বেরিয়ে রাজ্যসভার সাংসদ বিবেক টাঙ্কা বলেন, আমি প্রথমবার আসিনি। এটি একটি জি-২৩ নয়, একটি বন্ধুত্বপূর্ণ বৈঠক ছিল।বৈঠকের আগে একটি টুইট করেন শশী থারুর। তিনি লিখেছেন যে আমি আমার ভুল থেকে শিখছি। তাই এখন আমি আরেকটি ভুল করতে চাই। থারুরের এই বক্তব্যকে রাজনৈতিক মহলে ব্যাখ্যা করা হচ্ছে।বৈঠকটি আগে কপিল সিবালের বাড়িতে হওয়ার কথা ছিল, কিন্তু গান্ধী পরিবারের বিরুদ্ধে তার বক্তব্যের পরে স্থান পরিবর্তন করা হয়েছে।

WhatsApp Image 2022 03 16 at 7.16.23 PM

বাঘেল বলেন- নেতারা কংগ্রেসকে দুর্বল করার চেষ্টা করছেন G-23’ leaders Meet 

ছত্তিশগড়ের মুখ্যমন্ত্রী ভূপেশ বাঘেল বলেছেন – সিডব্লিউসি বৈঠকে সবাই সোনিয়াজির প্রতি পূর্ণ আস্থা প্রকাশ করেছে। আমরা সবাই সোনিয়া জি, রাহুল জি এবং প্রিয়াঙ্কা জির সাথে আছি। যারা এই ধরনের বক্তব্য দিচ্ছেন তারা কংগ্রেসকে দুর্বল করতে বলছেন। এটা খুবই দুঃখজনক যে, নির্বাচনের সময় একটি বক্তব্যও আসে না, কিন্তু নির্বাচনের পরও তিনি বিবৃতি দিতে থাকেন। আমি এর নিন্দা জানাই।এদিকে কংগ্রেস নেতা মল্লিকার্জুন খাড়গে বলেন- সিব্বল একজন আইনজীবী, নেতা নন।তিনি আজ পর্যন্ত একটি গ্রামেও কংগ্রেসকে শক্তিশালী করতে পারেননি। এমন নৈশভোজের আয়োজন সোনিয়া গান্ধীর ওপর কোনো প্রভাব ফেলবে না। কংগ্রেসের পরাজয়ের পরে একটি সাক্ষাত্কারে সিবাল বলেছিলেন – রাহুল গান্ধী ডিফ্যাক্টো প্রেসিডেন্ট। পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী করার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন তিনি। বলুন তো, কী যোগ্যতায় তিনি এই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন? আমাদের দাবি ঘরের কংগ্রেসের বদলে সবার কংগ্রেস হোক। গান্ধী পরিবার কংগ্রেসের নেতৃত্ব ছেড়ে দেন। শেষ নিঃশ্বাস পর্যন্ত এর জন্য লড়াই করে যাব।

G-23’ leaders Meet 

আর ও পড়ুন Punjab CM Bhagwant Mann Statement Today আজ থেকেই প্রতিশ্রুতি পূরণের কাজ শুরু হবে

Publish By Monirul Hossain
RELATED ARTICLES
Html code here! Replace this with any non empty raw html code and that's it

Most Popular