Tuesday, March 21, 2023
Homeরাজ্যকলকাতাBratya Basu to open Locality schools পাড়ায় শিক্ষালয় প্রকল্পের উদ্বোধন, স্কুল খোলার...

Bratya Basu to open Locality schools পাড়ায় শিক্ষালয় প্রকল্পের উদ্বোধন, স্কুল খোলার বার্তা  শিক্ষামন্ত্রীর

Bratya Basu to open Locality schools পাড়ায় শিক্ষালয় প্রকল্পের উদ্বোধন, স্কুল খোলার বার্তা  শিক্ষামন্ত্রীর

কৌশিক দাস,ইন্ডিয়া নিউজ বাংলা, কলকাতা: করোনা অতিমারীতে বন্ধ স্কুলের দরজা। তাই পাড়ায় পাড়ায় কম পরিসরে পড়ুয়াদের নিয়ে স্কুল খোলার সিদ্ধান্ত নিয়েছে রাজ্য সরকার। সেই পথে হেঁটেই আগামী ৭ ফেব্রুয়ারি থেকে পাড়ায় পাড়ায় শিক্ষালয় চালু করার কথা জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসু। আজ সাংবাদিক সম্মেলন করে শিক্ষামন্ত্রী জানিয়েছেন, ‘মোট ১২ হাজার শিক্ষকদের প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়েছে। পাড়ায় পাড়ায় গিয়ে তারাই ক্লাস নেবেন।’

মোট ১২ হাজার শিক্ষকদের প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়েছে। পাড়ায় পাড়ায় গিয়ে তারাই ক্লাস নেবেন।’

outdoor classroom india 1 orig

করোনার সংক্রমণের জন্যই দু’বছর বন্ধ স্কুলের দরজা। মাঝে ১৬ নভেম্বর থেকে রাজ্যে স্কুল খুললেও ওমিক্রনের কাঁটায় ফের বন্ধ হয় পঠনপাঠন। সংকট তৈরি হয় শিক্ষাক্ষেত্রে। তাই খোলা জায়গায় নিজের এলাকাতে শিক্ষালয় খুলে সরকারি ভাবে ক্লাস করানোর পদ্ধতিকেই হাতিয়ার করেছে শিক্ষা দফতর। সোমবার শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসু জানিয়েছেন, ‘স্কুল খোলার বিষয়ে আমরা আগ্রহী।কিন্তু করোনার সংক্রমণ বাড়লে কী করা যাবে। মুখ্যমন্ত্রী পুরো পরিস্থিতির উপর নজর রাখছেন। খুব শীঘ্রই তিনি স্কুল খোলার বিষয়ে দিনক্ষণ জানাবেন। স্বাস্থ্য বিধি মেনে স্কুল খোলা হবে। আমরাও চাই স্কুল খুলতে। ধাপে ধাপে প্রত্যেক শ্রেণীর স্কুল খোলার বিষয়ে আগ্রহী ছিলাম কিন্তু সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় বন্ধ রাখতে হল।’

Bratya Basu IT Minister

প্রায় ৮০ লক্ষ প্রাথমিক পড়ুয়ার জন্য এই প্রকল্প। 
সূত্র মারফত জানা গিয়েছে, শিক্ষা দফতরের তরফে এই নতুন প্রজেক্ট পাড়ায় শিক্ষালয় চালু হচ্ছে ৭ ফেব্রুয়ারি থেকে। জানা যাচ্ছে, প্রায় ৮০ লক্ষ প্রাথমিক পড়ুয়ার জন্য এই প্রকল্প। এই মুহূর্তে শুধুমাত্র প্রাথমিক স্তরে ভাবনা রাজ্য সরকারের। করোনা আবহে যেহেতু প্রায় ২ বছর স্কুল বন্ধ, তাই ছোটদের বিকল্প ক্লাসের ভাবনা বলেই দাবি শিক্ষা দফতরের।

প্রি-প্রাইমারি থেকে চতুর্থ শ্রেণি পর্যন্ত শিশুদের পঠনপাঠনের রাস্তা খুলতেই রাজ্য সরকারের এই পদক্ষেপ।                                                              মূলত, ৪ থেকে ৯ বছর বয়সী পড়ুয়াদের শিক্ষাদানই এই প্রকল্পের মূল উদ্দেশ্য।

স্কুল বন্ধ থাকার কারণে ক্ষতিগ্রস্থ নিচু ক্লাসের পড়ুয়াদের খোলামেলা পরিবেশে নিজের বাড়ির কাছে পড়াশোনার সুযোগ করে দিতে চায় রাজ্য সরকার। এজন্য স্কুলকে তাদের দোরগোড়ায় পৌঁছে দিতে উদ্যোগ নিচ্ছে রাজ্যের শিক্ষা দফতর। ‘দুয়ারে সরকার’ এর পর এবার শুরু হতে চলেছে পাড়ায় শিক্ষালয়। প্রাথমিক শিক্ষা বা পরীক্ষার প্রস্তুতির জন্য দূরে যেতে না হয়, কিংবা অনলাইন ক্লাসের ওপর নির্ভর করতে না হয়, তার জন্য এবার থেকে শিক্ষক, পার্শ্বশিক্ষক, শিক্ষা সহায়কেরা ক্লাস নেবেন।

তবে বন্দী ক্লাসরুমে নয়, বরং প্রকৃতির মাঝে এই শিক্ষা ব্যবস্থা শুরু হতে চলেছে

images 1591065946072 images 4

প্রসঙ্গত, বেশ কয়েকদিন যাবৎ স্কুল খোলার দাবিতে সরব হয়েছে বিভিন্ন মহল। তাই এবার প্রাথমিক থেকে অষ্টম শ্রেণীর পড়ুয়াদের জন্য রাজ্য সরকারের নতুন পদক্ষেপ। বিশেষজ্ঞদের মতে, এই পদক্ষেপ নিঃসন্দেহে নীচু শ্রেণীর পড়ুয়াদের আবার পড়াশোনার মধ্যে ফিরিয়ে আনতে চলেছে।

Published by Samyajit Ghosh

 

RELATED ARTICLES
Html code here! Replace this with any non empty raw html code and that's it

Most Popular