Tuesday, October 4, 2022
Homeরাজ্যCM Mamata Banerjee : পূর্ব মেদনীপুরের পুলিশ সুপার ও ব্যারাকপুরের পুলিশ কমিশনারকে...

CM Mamata Banerjee : পূর্ব মেদনীপুরের পুলিশ সুপার ও ব্যারাকপুরের পুলিশ কমিশনারকে ভরা সভায় মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রশ্ন নিয়ে চাঞ্চল্য

ইন্ডিয়া নিউজ বাংলা

কলকাতা : নেতাজি ইন্ডোর স্টেডিয়ামে রাজ্যের প্রশাসনিক বৈঠকে মুখ্যমন্ত্রী রাজ্যের কয়েকজন পুলিশকর্তার ভুমিকা নিয়ে অসন্তোষ প্রকাশ করেন। ভরা সভায় মুখ্যমন্ত্রী বুঝিয়ে দেন যে তিনি পূর্ব মেদনীপুরের পুলিশ সুপার  অমরনাথ কে ও ব্যারাকপুর পুলিশ কমিশনারেটের সিপির মনোজ ভার্মার ভূমিকায় তিনি খুশি নন।

তোমাকে কি গভর্নর ফোন টোন করেন? এটা করবে না, সেটা করবে না বলেন?  : মুখ্যমন্ত্রী  CM Mamata Banerjee

amarnath

ভরা সভায় পূর্ব মেদনীপুরের পুলিশসুপার অমরনাথ কে-কে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, “তোমার জেলা সম্পর্কে আমি কিছু কিছু অভিযোগ পাচ্ছি। কাউকে কাউকে সাজিয়ে দাঙ্গা লাগানোর চেষ্টা করা হচ্ছে পরিকল্পিতভাবে। অনেকদিন তোমাদের বলেছে, তোমরা কিছু করোনি। তারপর আমি ইন্টারফেয়ার করেছি। শোনো যারা দাঙ্গা করে কোনও ধর্ম নেই তাদের। কোনও কোনও রাজনৈতিক নেতা ইন্ধন দেয়, তাই হয়। ”পুলিশসুপার পাল্টা বলেন, “আমরা ইতিমধ্যেই তদন্ত করেছি। ব্যবস্থাও নিয়েছি।” এরপরই পুলিশসুপারকে  মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, “তোমাকে কি গভর্নর ফোন টোন করেন? এটা করবে না, সেটা করবে না বলেন? জানি করলেও এখন তুমি বলবে না! তবে তোমার ওসব দেখার দরকার নেই। তুমি রাজ্য সরকারের কাজ করছ, ঠিক আছে? তুমি তোমার মতো কাজ করবে। তুমি খুব ভালভাবে কাজ করবে বলেই কিন্তু ওখানে দিয়েছিলাম। কিন্তু অভিযোগ পেলাম হলদিয়াতেও। বাধ্য হয়ে দু’জনকে অ্যারেস্ট করে সরাতে হল। ওরা কাজ করতে অসুবিধা করছিল এক্সাইড ইন্ডাস্ট্রিকে। এটা আমাকে কেন দেখতে হবে তোমরা থাকতে? তুমি নিজে দেখো এগুলো। তোমার যদি মনে হয় কাজ করতে অসুবিধা হচ্ছে রাজনৈতিক চাপের জন্য, আমাকে সরাসরি বলতে পার। কেউ তোমাদের বলে দেবে এটা করবে না, ওটা করবে না— তা শুনবে না।” পাশাপাশিই, পূর্ব মেদিনীপুরের জেলাশাসক পূর্ণেন্দু মাজির উদাহরণ দিয়ে মুখ্যমন্ত্রী পুলিশ সুপারকে বলেন, ‘‘পূর্ণেন্দু তো কাজ করছে। ওকে দেখে শেখো!’’

‘তুমি ইনভেস্টিগেশন করেছ ‘এ’ থেকে। কিন্তু তোমাকে যেতে হবে ‘জেড’ পর্যন্ত : মুখ্যমন্ত্রী  CM Mamata Banerjee

cms manoj verma 6694679 835x547 m

অন্যদিকে ব্যারাক কমিশনারেট এলাকা প্রায়ই হিংসার ঘটনায় খবরেরে শিরোণামে উঠে আসছে। সম্প্রতি তৃণমূল নেতাকে খুনের অভিযোগে বিজেপি সাংসদ অর্জুন সিং ঘনিষ্ঠ বিজয় মুখোপাধ্যায় নামে একজনকে ধরে পুলিশ।  একের পর এক খুন বোমাবাজির ঘটনা ঘটছে। কেন ব্যারাকপুরে অশান্তি থামছে না তা নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেন মুখ্যমন্ত্রী। প্রয়োজনে হিংসাত্মক কাজকর্ম বন্ধ করতে এসটিফ ও কলকাতা পুলিশের সাহায্য নিতে ব্যারাকপুর পুলিশ কমিশনারেটের মনোজ ভার্মা কে নির্দেশ দেন মুখ্যমন্ত্রী। এদিন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, বাইরে থেকে অস্ত্র এনে অস্ত্রের কারবারিরা বাংলাকে অশান্ত করবে, সেটা তিনি কোনওভাবেই মেনে নেবেন না। কঠোর হাতে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করার বার্তা দেন বারাকপুর কমিশনারেটের কমিশনার মনোজ ভার্মাকে। মুখ্যমন্ত্রী বলেন, “বারাকপুর কমিশনারেটে মনোজের ওখানে দু’ তিনটে ঘটনা ঘটাল। পরিকল্পিতভাবে ঘটানো হয়েছে। বাইরে থেকে ক্রিমিনাল আমদানি করা হচ্ছে। সিআইডি, এসটিএফের সাহায্য নাও। কলকাতা পুলিশও সহযোগিতা করবে মনোজকে। ডিজি মালব্যও সহযোগিতা করবেন। ওখানকার ক্রিমিনাল চক্রটাকে ধরা দরকার। যারা বাইরে থেকে অস্ত্র এনে, অস্ত্র কারবারি এনে আমার রাজ্যে গোলমাল করার চেষ্টা করে, আমি তাদের ছাড়ব না।” মনোজ বলেন, ‘‘ম্যাডাম, দুটো ঘটনাতেই আমরা অ্যারেস্ট করেছি।’’ মুখ্যমন্ত্রী পাল্টা জবাব দেন, ‘‘শুধু অ্যারেস্ট করলেই হবে না! পিছনে কারা? আজকালকার দিনে দু’হাজার টাকা দিয়ে বলছে, খুন করে চলে এসো। পিছনে কে, টাকাটা দিল কে? পিছন দিকে কে আছে সেটা ইনভেস্টিগেশন করতে হবে।’’ মুখ্যমন্ত্রী আরও বলেন, ‘‘তুমি ইনভেস্টিগেশন করেছ ‘এ’ থেকে। কিন্তু তোমাকে যেতে হবে ‘জেড’ পর্যন্ত। এ জন্যই বলছি তুমি এসটিএফ, সিআইডি ও কলকাতা পুলিশে বিনীতের (কলকাতার পুলিশ কমিশার বিনীত গোয়েল) সাহায্য নাও।’’

CM Mamata Banerjee

আর ও পড়ুন : Traces of child trafficking cycle হাবরায় শিশু পাচার চক্রের হদিশ,গ্ৰেফতার ৪

RELATED ARTICLES
Html code here! Replace this with any non empty raw html code and that's it

Most Popular