Tuesday, October 4, 2022
Homeরাজ্যঝাড়গ্রামDeath by Abandoned Bomb বায়ুসেনার পরিত্যক্ত বোমা খুলতে গিয়ে বিস্ফোরণ! ঝাড়গ্রামের সাঁকরাইলে...

Death by Abandoned Bomb বায়ুসেনার পরিত্যক্ত বোমা খুলতে গিয়ে বিস্ফোরণ! ঝাড়গ্রামের সাঁকরাইলে মৃত ১, আহত ৩

অশোক ভট্টাচার্য, ঝাড়গ্রাম, ইন্ডিয়া নিউজ বাংলা: Death by Abandoned Bomb বায়ুসেনার পরিত্যক্ত বোমা খুলতে গিয়ে বিস্ফোরণে মৃত্যু হল একজনের। ঘটনায় আহত হন তিনজন। সোমবার সকালে ঝাড়গ্রাম জেলার সাঁকরাইল থানার অন্তর্গত অঙ্গারনালী গ্রামের ঘটনা। পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, মৃত ব্যক্তির নাম রামজীবন রানা। বিস্ফোরণের জেরে আহত হয়েছেন রামজীবনের স্ত্রী মালতি রানা ও তাঁর জামাই সুরজিৎ রানা এবং মেয়ে মেনকা রানা।

জানা গিয়েছে, সাঁকরাইল থানার অন্তর্গত অঙ্গারনালী এলাকার নির্দিষ্ট একটি জঙ্গলে বোমা ফেলার প্রশিক্ষণ হয় কলাইকুণ্ডা বায়ুসেনার প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের যুদ্ধবিমানগুলির। ওই বোমা ফেলার জায়গাটি সাধারণ মানুষের জন্য যাওয়া নিষিদ্ধ। বোমায় ব্যবহার করা মূল্যবান ধাতুর খোঁজে কিছু মানুষ রাতের অন্ধকারে জঙ্গলে গিয়ে বোমার ধাতুর সংগ্রহ করে। সূত্রের খবর, রামজীবন বায়ুসেনার একটি না ফাটা অবস্থায় বোমা পেয়েছিল কোনও মাধ্যম থেকে। রামজীবন পেশায় লোহারের কাজ করেন। বোমা হাতে পেয়ে এদিন সকালে তিনি হাতুড়ি দিয়ে বোমা খোলার চেষ্টা করছিলেন। তখনই হঠাৎ বোমাটি বিস্ফোরণ হয়। ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় রামজীবনের। বোমা খোলার সময় রামজীবনের বাড়িতে উপস্থিত ছিলেন তাঁর স্ত্রী মালতি রানা, মেয়ে মেনকা রানা এবং জামাই সুরজিৎ রানা। বোমার জেরে এরা তিনজন আহত হয়। বোমার বিস্ফোরণের জেরে রামজীবনের বাড়িটি ব্যাপকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়। বোমার শব্দ শুনে স্থানীয় গ্রামবাসীরা রামজীবনের বাড়িতে গিয়ে তাঁদের উদ্ধার করে ভাঙ্গাগড় হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। রামজীবনকে মৃত বলে ঘোষণা করেন কর্তব্যরত চিকিৎসক। আহত তিনজনকে ঝাড়গ্রাম মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে রেফার করা হয়। Death by Abandoned Bomb

হাসপাতাল সূত্রে জানা গিয়েছে, রামজীবনের স্ত্রী মালতি রানা ও মেয়ে মেনকা রানার অবস্থা আশঙ্কাজনক। রামজীবনের জামাই সুরজিৎ রানা কেবলমাত্র হাঁটুতে চোট পেয়েছেন। এদিন সুরজিৎ রানা সংবাদমাধ্যমের কাছে বলেন, ‘এয়ারফোর্সের বোমা ছাড়াচ্ছিলেন ছেনি হাতুড়ি দিয়ে। সেই সময় ওটা ফেটে গিয়ে শ্বশুরের মৃত্যু হয়। আমি আর আমার স্ত্রী মেনকা রানা ও শাশুড়ি মালতি রানা আহত হয়েছি। আমার বাড়ি খড়গপুরের শালুয়া এলাকায়। আগামীকাল গ্রামে শীতলা পূজা রয়েছে বলে আমরা শ্বশুরবাড়ি এসেছিলাম।’ কিন্তু সুরজিৎ পরিষ্কারভাবে জানেন না যে তাঁর শ্বশুরমশাই এয়ারফোর্সের বোমাটি কীভাবে পেলেন!

Death by Abandoned Bomb

আরও পড়ুন : Weapons Recovered in Nadia  হাঁসখালিতে আটটি নতুন দেশি পিস্তল এবং পাঁচটি তাজা বোমা উদ্ধার করল পুলিশ

————
Published by Subhasish Mandal

RELATED ARTICLES
Html code here! Replace this with any non empty raw html code and that's it

Most Popular